Facebook Boost করুন ব্যবসায় সফলতা অর্জন করুন

Boosting

বর্তমান সময়ে দারুন একটি প্লাটফরম এসেছে পোস্ট করে নিজের ক্যারিয়ার গড়া। ব্যবসাকে আরও উন্নত করতে চলে এলো ফেসবুক বুস্ট সিস্টেম। ফেসবুকে পোস্ট করে আপনি হাজার হাজার লাখ লাখ ক্রেতা পেতে পারেন।

একটি পোষ্টের বিনিময় আপনি পেতে পারেন হাজার-হাজার ভিউজ। আপনার কাঙ্খিত স্থানে পৌঁছাতে আপনাকে অবশ্যই পোস্ট করা জরুরি।
তাই আজকের আর্টিকেলে আপনাদেরকে জানাবো কিভাবে আপনারা পোষ্টের মাধ্যমে আপনাদের পণ্য প্রোডাক্ট, ওয়েবসাইট এবং আপনাদের পেইজ কে পপুলার করতে পারেন।
সম্পূর্ণ পোস্টটি পড়ুন এবং আপনারা ব্যবসায় সফলতা অর্জন করুন।

সর্বপ্রথমে আপনার ওয়েবসাইটের লিংক অথবা আপনার পণ্যের একটি ফটোগ্রাফি আপনি তৈরি করুন। তারপর সেই ওয়েবসাইটের লিঙ্ক এটি আপনি কপি করে সরাসরি ফেসবুক পেইজে চলে আসুন।

ফেইসবুক পেইজে চলে আসার পরে আপনারা পোস্ট অপশন এ পোস্ট টি কপি করে পেস্ট করুন। পেস্ট করার পরে উপরে পাবলিক নামে অপশনটি পাবেন সে পাবলিস্ট এ ক্লিক করুন। পাবলিশ এ ক্লিক করার পরে আপনার Boost নামে অপশনটি দেখতে পারবেন সেটাকে এনাবল করে দিয়ে আবারো পাবলিশ এ ক্লিক করুন।

পাবলিশ এ ক্লিক করার পরে আপনার পোস্টটি পাবলিক হবে এবং পোষ্টের জন্য আপনাকে অন্য একটি ফিচার এ নিয়ে যাবে। সেই পেজে আসার পরে আপনার পোস্টটি কোন ভাবে এড শো করবে সেই ads লোগোটি আপনাকে সর্ব প্রথমে দেখাবে। তার নিচের দিকে দেখতে পারবেন এসপেশাল অ্যাড ক্যাটেগরি। এখান থেকে আপনি এড ক্যাটাগরিগুলো সিলেক্ট করতে পারবেন। নিচের দিকে দেখতে পাবেন goal নামে অপশন রয়েছে।

নিচের টা সিলেক্ট করুন গেট মোর ওয়েবসাইট ভিজিটরস। তার নিচের দিকে চলে এসে সেন্স বাটনে ক্লিক করে আপনি বাটন চেঞ্জ করতে পারেন। তারপরে নিচে দেখতে পাবেন আরো ডিএনসি লেখা আছে সেখানে পিপল ইউজ টার্গেটিং এখানে ক্লিক করবেন।

তারপর নিচের দিকে দেখতে পারবেন রিজিয়ন নামে অপশন আছে। এখানে আপনি কোন জেলা ভিত্তিক ভাবে কোন দেশভিত্তিক ভাবে কোন রাষ্ট্র ভিত্তিকভাবে এবং কোন উপজেলা ভিত্তিক ভাবে সিলেক্ট করতে পারবেন। এখানে আপনাদেরকে বিস্তারিত বলবো এখানে উপরে যদি আপনি বাংলাদেশ সিলেট করেন কিংবা বাংলাদেশের কোন অঞ্চলে আপনি এই আপনার এডস সো করাতে চান সেভাবে পারবেন।

আর যদি চান যে আপনি পুরো বিশ্বে এডস শো করাবেন তাও পারবেন। আপনি যে কোন একটি স্থান জায়গা বেঁধে এডস শো করাবেন। সেটা এখানে উল্লেখ করুন। তার নিচের দিকে ইন্টারেস্ট সেট করতে পারবেন তার নিচের দিকে দেখতে পাবেন বয়স সিলেক্ট করতে বলছে।

আপনি কোন ধরনের বয়সের মানুষের কাছে আপনার একটি শো করাতে চান তা সিলেক্ট করুন। সর্বনিম্ন ১৮ বছর থেকে সর্বোচ্চ ৬৫ বছর পর্যন্ত সিলেক্ট করতে পারবেন।

কোন ধরনের মানুষের কাছে এডস শো করাবেন মহিলা না পুরুষ। সেটা সিলেক্ট করুন। যদি আপনি মহিলা পুরুষ উভয়ের কাছে এসো করাতে চান তাহলে অলে সিলেক্ট করুন।

আপনি কত ডলার বা কত টাকা বুস্ট দিতে চান তা সিলেক্ট করুন

সর্বনিম্ন যদি দিনে আপনি ৮০ টাকা অ্যাড ফি দিতে চান তাহলে আপনাকে কতজন শো করাবে।
৮০ টাকা পেমেন্ট করলে আপনি দিনে ৮৩৯ থেকে ২.৪k পর্যন্ত ইম্প্রেশন পাবেন।

এভাবে আপনি যত বাজেট দিবেন ততই আপনার ভিউজ বাড়তে থাকবে। তবে অবশ্যই আপনি এখানে যদি পোস্ট করেন তাহলে মিনিমাম ১০০০ টাকা পোস্ট করবেন। তাহলে আপনার ওয়েবসাইটটি দারুন পরিমাণে পজিশনে পৌঁছে যাবে। সর্বনিম্ন ডিউরেশন দিবেন ৫ দিন ডেস। পাঁচ দিন সময় সিলেক্ট করুন তারপর নিচের পেমেন্ট অপশনে এসে আপনার বাজেট টি দেখুন এবং তাদের টেক্সট দেখুন তারপরে নিচের দিকে সবকিছু কমপ্লিট করে রিভাইজ করুন। রিভাইস করার পরে নিচের দিকে এসে দেখতে পারবেন অ্যাড পেমেন্ট অপশন সেখানে ক্লিক করুন।

পেমেন্ট

পেমেন্ট করার জন্য এবার আপনাকে কান্ট্রি সিলেক্ট করতে হবে। যে আপনি কোন কান্ট্রি থেকে আসলে ডলার সেল করতে চাচ্ছেন। আপনি যদি যে কান্ট্রি হবেন সে কান্ট্রি সিলেক্ট করুন। তারপর নিচে পেমেন্ট অপশন টি ক্লিক করুন।
এখানে আপনি ভিসা মাস্টার কার্ড দিয়ে এখানে পোস্ট করতে পারবেন।

একটু কাঠি খানে ক্লিক করার পরে আপনার কার্ড নাম্বারটি দিতে হবে এবং এক্সপাইরেশনের দিতে হবে তারপর সিকিউরিটি কোড দিতে হবে যেগুলো আপনার কার্ডে লেখা আছে তারপর সেভ কার্ড এ ক্লিক করলেই আপনার অটোমেটিকডলার কেটে নিবে এবং আপনার এক প্রসেসিং থাকবে।

চার থেকে ছয় ঘন্টার মধ্যে আপনার এড গুলো চালু হবে। এভাবেই মূলত বুষ্টের কাজ করতে হয়। উল্লেখিত পদ্ধতিগুলো অবলম্বন করে আপনি আপনার ওয়েবসাইটের লিঙ্ক শেয়ার করে আপনি পপুলার হতে পারেন।

Leave a Comment